আরব আমিরাতকে ২-০ গোলে হারিয়ে জয় বাংলাদেশের

খেলা

নিউজ মিডিয়া ২৪: ডেস্ক: আরব আমিরাতকে ২-০ গোলে হারিয়ে অনূর্ধ্ব- ১৯ বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ টুর্নামেন্টে শুভসূচনা করেছে বাংলাদেশ।
গ্যালারিতে ‘বাংলাদেশ, বাংলাদেশ’ স্লোগান। সিরাত জাহান স্বপ্না , মিসরাত জাহান মৌসুমিরা বল নিয়ে ছুটলেই দর্শকদের গর্জন। অনূর্ধ্ব- ১৯ বঙ্গমাতা আন্তর্জাতিক ফুটবল টুর্নামেন্ট উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে আজ অনেক দিন পর পাওয়া গেল ফুটবলের আসল আমেজ। দর্শক সমর্থনের জবাবটাও ভালো দিয়েছে বাংলাদেশের মেয়েরা। আরব আমিরাতের বিপক্ষে ২-০ গোলের জয় নিয়ে টুর্নামেন্টে করেছে শুভসূচনা। একটি করে গোল করেছেন স্বপ্না ও মৌসুমি।
ঘরের মাঠে নিজেদের টুর্নামেন্টে জয় দিয়ে শুরু করতে পারার আনন্দ আছে। কিন্তু বাংলাদেশের মেয়েরা প্রত্যাশা পূরণ করতে পেরেছে বলে মনে হয় না। মাঠে নামার আগে বিশ্লেষণে ধরেই নেওয়া হয়েছিল, আরব আমিরাতকে গোল-বন্যায় ভাসিয়ে দেবে মৌসুমিরা। প্রতিপক্ষকে বাগে পেয়ে গোল হাতছাড়া করার মিছিলে তা আর হলো কোথায়। গোলাম রব্বানি ছোটনের শিষ্যদের পায়ে দেখা যায়নি সুন্দর ফুটবলের বিজ্ঞাপনও। তবে ঘরের মাঠে এত বড় টুর্নামেন্টের শুরুতে চাপ সামলে জয় দিয়ে শুরু করা গেছে। সুন্দর ফুটবলের জন্য টুর্নামেন্টের বাকিটা পথ তো পড়েই রইল।
আসলে বাংলাদেশের মেয়েরাই প্রত্যাশা বাড়িয়ে রেখেছে। নিকট অতীতে ফুটবলের সব সুখবর তো এদের ঘিরেই। আজও শুরুটা হয়েছিল দারুণ। বাংলাদেশ যে অলআউট আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলবে, তা কিক অফেই বোঝা গিয়েছিল। প্রতিপক্ষ স্ট্রাইকার কিক অফের প্রথম পাসের পর সেই বল তাড়া করেছেন আটজন। ৩-৪-৩ ফরমেশনে শুরু করা বাংলাদেশকে দেখে বেশির ভাগ সময় মনে হচ্ছিল ২-৪-৬ ফরমেশনে খেলছে। শেষ বাঁশি পর্যন্ত আক্রমণ ও প্রতিপক্ষের ওপর প্রেসিংটা ছিল। কিন্তু গোল মিস ও ব্যক্তিগত ঝলক দেখাতে গিয়ে ২-০ ব্যবধানটাকে বড় বানাতে পারেনি বাংলাদেশ।
১২ মিনিটে স্বপ্নার বুদ্ধিদীপ্ত গোলে এগিয়ে যাওয়া। ডিফেন্ডার আঁখি খাতুনের এরিয়াল থ্রু, অফসাইড ফাঁদ ভেঙে দ্রুত গতিতে বের হয়ে বলের নিয়ন্ত্রণ নেন স্বপ্না। পোস্ট ছেড়ে বের হয়ে আসা আমিরাতের গোলরক্ষকের পাশ দিয়ে জালে, ১-০। মুহুর্মুহু আক্রমণের পর গোলের মুখ খুলে যাওয়ায় মনে হচ্ছিল, শুরু হয়ে গেল গোলের মিছিল। ১৮ মিনিটে অনায়াসে ব্যবধান ২-০ করতে পারতেন স্বপ্নাই। মারিয়া মান্দার ভলিতে ফাঁকা হয়ে যায় আমিরাতের রক্ষণভাগ। বলের নিয়ন্ত্রণও নিয়েছিলেন ভালো, কিন্তু শেষ মুহূর্তে তালগোল পাকিয়ে গোলরক্ষকের হাতে তুলে দেন বাংলাদেশ স্ট্রাইকার।
৩০ মিনিটে ২-০ করেন অধিনায়ক মৌসুমি। মনিকা চাকমার কর্নারে জটলা থেকে কৃষ্ণা রাণী সরকারের হেড গোল লাইনের প্রান্তে এসে পড়লে মৌসুমি হেড করে বল জালে পাঠান। শুরুর ৩০ মিনিটেই ২ গোল হজম করে কোমরে হাত চলে যায় প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়দের।
বিরতি থেকে ফিরে স্বপ্নার শিশুসুলভ মিস। কৃষ্ণার রক্ষণচেরা পাস নিয়ন্ত্রণে নিয়ে গোলরক্ষকে একা পেয়ে হাতে তুলে দেন ম্যাচের প্রথম গোলদাতা। এমন আরও কিছু ভুল তো হলোই। এ কারণে ২-০ যে মন ভরাচ্ছে না। বাংলাদেশের মেয়েদের এত সুনাম শুনে প্রথম সরাসরি খেলা দেখতে বসে অনেক ফুটবলপ্রেমীর মন হয়তো ভরেওনি। তবে এই ফুটবলারদের ওপর ভরসা তাঁরা নিশ্চয়ই রাখবেন। বাংলাদেশ যে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার জন্য খেলছে এই টুর্নামেন্ট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *