উপ‌নির্বাচ‌নে দলীয় প্রার্থীর প‌ক্ষে কাজ করার আহ্বান জা‌নি‌য়ে‌ছেন নেতাকর্মী‌দের

জাতীয় বাংলাদেশ রাজনীতি

ঢাকা (৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০) : সামনে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া কয়েকটি শূন্য আসনের উপনির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর পক্ষে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
তিনি বলেছেন, ‘জনগণের প্রতি আমাদের আস্থা এবং বিশ্বাস আছে। তারা আমাদের বারবার ভোট দিচ্ছেন এবং কাজ করার সুযোগ সৃষ্টি করে দিচ্ছেন। দলের মধ্য থেকে যেন আমাদের দলের প্রার্থীর পক্ষে কাজ করা হয়।’
বুধবার (২ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর সভায় গণভবন থেকে সংযুক্ত (ভার্চুয়াল) হয়ে তিনি এসব কথা বলেন। ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ের আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সম্পাদকমণ্ডলীর সভা অনুষ্ঠিত হয়।
তিনি বলেন, ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিকে আরও সুন্দরভাবে গড়ে তুলতে চাই। এটা ছাত্র-শিক্ষকদের মিলনকেন্দ্র, সে কারণে এটাকে আরও সুন্দর করে গড়ে তোলার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছি। এ বিষয়ে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে এবং ডিজাইন করার কথা বলা হয়েছে। আমি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী ছিলাম। জাতির পিতাও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছিলেন। সে কারণে আমরা এটা করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এছাড়া পাবলিক লাইব্রেরি ও হলগুলোও আধুনিকায়ন করতে চাই।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এবার করোনাভাইরাসের সময় দলের নেতাকর্মীরা যেভাবে মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে ত্রাণ দিয়েছেন, সাহায্য সহযোগিতা করেছেন সেজন্য আমি সবাইকে ধন্যবাদ জানাই। মানুষকে সহযোগিতা করাই হলো আপনাদের কাজ। জাতির পিতা আমাদেরকে সেই শিক্ষা দিয়েছেন। বাংলাদেশের জনগণ আমাদের বারবার ভোট দিয়েছেন। আমরা জনগণের জন্য কাজ করছি। আমরা বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলাম, আমাদের প্রবৃদ্ধি ৮ দশমিক ২ ভাগ টার্গেট করেছিলাম। এপ্রিল পর্যন্ত আমরা ৭ দশমিক ২ ভাগে পৌঁছেছিলাম। কিন্তু করোনার কারণে কিছুটা কমে গেছে। তারপরেও আমরা ভালো অবস্থানে আছি। সকল ক্ষেত্রেই আমরা বিশেষ প্রণোদনা দিয়েছি। ব্যবসা বাণিজ্য ভালোভাবেই চলছে। আমরা ১০০টা অর্থনৈতিক অঞ্চল করতে যাচ্ছি। সেখানে আমরা বিনিয়োগ করতে চাই এবং বিদেশি বিনিয়োগকারীদেরও সুযোগ করে দিতে চাই।’
শেখ হাসিনা বলেন, ‘বাংলাদেশের মানুষকে নিয়েই আমাদের চিন্তা এবং কাজ। দেশের মানুষ কীভাবে ভালো থাকবে সেজন্য কাজ করা। জাতির পিতা আমাদের আদর্শ তার আদর্শ নিয়েই আমাদেরকে সামনে চলতে হবে। মুজিববর্ষ উপলক্ষে আমরা যে কর্মসূচি ঘোষণা করেছিলাম, করোনার কারণে সেভাবে আমরা পালন করতে পারিনি। তারপরও আমরা লক্ষ্য স্থির করেছি যে, মুজিববর্ষ উপলক্ষে আমরা সারাদেশে পর্যাপ্ত গাছ লাগাব। ভূমিহীনদের ভূমি দেব। যারা গৃহহীন তাদেরকে আমরা ঘর করে দেব। যাদের গৃহ নেই দলের পক্ষ থেকেও আমরা তাদের তালিকা তৈরি করতে পারি। যাদের ভিটা আছে কিন্তু ঘর তোলার টাকা নেই তাদেরকে আমরা সহযোগিতা করে যাচ্ছি। সামনে কয়েকটা উপনির্বাচন আছে।’ নির্বাচনে নেতাকর্মীদের দলের প্রার্থীর পক্ষে কাজ করে করার জন্য বলেন প্রধানমন্ত্রী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *