গণগ্রেপ্তারে চিরুনি অভিযান শুরু করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী: ঐক্যফ্রণ্ট

রাজনীতি

নিউজ মিডিয়া ২৪:ঢাকা : সরকারের নির্দেশে সারাদেশে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের গণগ্রেপ্তারে চিরুনি অভিযান শুরু করেছে বলে অভিযোগ করেছে জাতীয় ঐক্যফ্রণ্ট।
শুক্রবার রাজধানীর পুরানা পল্টনে জাতীয় ঐক্যফ্রণ্টের কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন ঐক্যফ্রণ্টের সমন্বয় কমিটির আহ্বায়ক জগলুল হায়দার আফ্রিক। ঐক্যফ্রণ্টের শীর্ষ নেতা গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনের পক্ষে এদিন সংবাদ সম্মেলনে কথা বলেন তিনি।
আফ্রিক বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সারাদেশে ঐক্যফ্রন্টের ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী, নেতা-কর্মী-সমর্থকদের মাঠে দাঁড়াতে দেয়া হচ্ছে না। তারপরও ভোটাররা কিন্তু থেমে নেই। তারা নিজের মতো করে প্রস্তুতি নিয়ে যার যার এলাকায় ফিরে গেছেন ১০ বছর পর তাদের কাঙ্ক্ষিত ভোটাধিকার প্রয়োগের জন্য। পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দেয়ার জন্য। তারা মূলত ভোট উৎসবের অপেক্ষায়। তাই যতই বাধা দেয়া হোক না কেন, এই ভোটারদের কেউ দমিয়ে রাখতে পারবে না। এমনকি রাজধানী ঢাকার রাস্তাঘাট প্রায় খালি হয়ে গেছে। সবাই স্ব-উদ্যোগে নিজ নিজ এলাকায় চলে গেছেন ভোট উৎসবে অংশ নিতে।
তিনি বলেন, প্রার্থী-নেতা-কর্মী-সর্মথকদের ওপর দমন-পীড়ন কিন্তু থেমে নেই। সহিংসতা চলছেই। কিন্তু ভীতিকর অবস্থার কাঙ্ক্ষিত উন্নতি বা পরিবর্তন লক্ষ্য করা যাচ্ছে না। বারবার নির্বাচন কমিশনকে বলার পরও পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর আক্রমণাত্মক ভূমিকার বিন্দুমাত্র পরিবর্তন হয়নি। বরং দিনকে দিন বেড়েই চলেছে আক্রমণের ধরন। ইন্টারনেটের গতি না কমাতে একাধিকবার আহ্বান জানানো সত্ত্বেও তা মানা হচ্ছে না। নির্বাচনের দিন আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি ও নির্বাচন সংক্রান্ত সার্বিক খবরাখবর দ্রুত জানার স্বার্থে ফোর-জি সচল রাখার আহ্বান আবারও জানাচ্ছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট।
নির্বাচনের দিন অ্যাম্বুলেন্স প্রস্তুত রাখার জন্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাকে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের নির্দেশের কথা উল্লেখ করে আফ্রিক বলেন, প্রধান নির্বাচন কমিশনারের এ নির্দেশ প্রমাণ করে সেদিন রক্তক্ষয়ী পরিবেশ সৃষ্টির অপচেষ্টা অথবা জনমনে ভীতি সঞ্চার করার জন্য এসব বলা হচ্ছে। এতে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট প্রার্থী-নেতা-কর্মী-সমর্থকরা মোটেও ভীত নন। ভোটাররাও ভয় পাবেন না। বরং তারা সবকিছুকে তুচ্ছ প্রমাণ করে ৩০ ডিসেম্বর ভোট বিপ্লব ঘটানোর মিছিলে শামিল হয়ে কাঙ্ক্ষিত বিজয়ে অবদান রাখবেন বলে ঐক্যফ্রন্টের দৃঢ় বিশ্বাস।
সংবাদ সম্মেলনে বিকল্পধারা বাংলাদেশের (একাংশ) চেয়ারম্যান অধ্যাপক নূরুল আমিন বেপারী, মহাসচিব শাহ্ আহমেদ বাদল, বিএনপি নেতা খন্দকার জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *