গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় দেশে আরও ২০ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ১১৮২

অপরাধ জাতীয় জীবনযাপন প্রচ্ছদ রাজধানী

ঢাকা (অক্টোবর, ২০২০) : দেশে করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়ে আরও ২০ জন মারা গেছেন। গত ৪ মাসের বেশি সময়ের মধ্যে ২৪ ঘণ্টায় এটিই সর্বনিম্ন মৃত্যুর সংখ্যা। এর আগে গত ২৮ মে একদিনে সবচেয়ে কম মৃত্যু হয়েছিল ১৫ জনের।

বিশ্বে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে, ২ লাখ ১৩ হাজার ৫২৪ জন। বিশ্বে সর্বোচ্চ আক্রান্তের সংখ্যাও এই দেশটিতে। এ নিয়ে ৭৫ লাখ ৪৯ হাজার ৩২৩ জন এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন।

করোনা আক্রান্তের সংখ্যায় দ্বিতীয় এবং মৃতের সংখ্যায় তৃতীয় অবস্থানে আছে ভারত। দেশটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ৬৪ লাখ ৭১ হাজার ৯৩৪ জন। এখন পর্যন্ত দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১ লাখ ৮৭৫ জন।

করোনা আক্রান্তের সংখ্যায় তৃতীয় এবং মৃতের সংখ্যায় দ্বিতীয় অবস্থানে আছে ব্রাজিল। দেশটিতে এখন পর্যন্ত এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৪৮ লাখ ৮২ হাজার ২৩১ জন। এখন পর্যন্ত দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন এক লাখ ৪৫ হাজার ৪৩১ জন।

করোনায় মৃতের দিক থেকে চতুর্থ অবস্থানে আছে মেক্সিকো। দেশটিতে এখন পর্যন্ত এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৭৮ হাজার ৪৯২ জন। আর এ পর্যন্ত দেশটিতে আক্রান্ত হয়েছে ৭ লাখ ৫৩ হাজার ৯০ জন।

আক্রান্তের দিক থেকে চতুর্থ অবস্থানে আছে রাশিয়া। দেশটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছে ১১ লাখ ৯৪ হাজার ৬৪৩ জন। আর মৃতের সংখ্যা ২১ হাজার ৭৭ জন।

এ ছাড়া নতুন করে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে আরও এক হাজার ১৮২ জনের দেহে। এখন পর্যন্ত দেশে মোট শনাক্ত হলো ৩ লাখ ৬৭ হাজার ৫৬৫ জন করোনা রোগী।

শনিবার বিকেলে করোনাভাইরাস নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদফতরের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। সংস্থার অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও উল্লেখ করা হয়, এ দিন সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৪৪২ জন। মোট সুস্থ হয়েছেন ২ লাখ ৮০ হাজার ৬৯ জন।

গতকাল শুক্রবার দেশে আরও এক হাজার ৩৯৬ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়। এ ছাড়া আক্রান্তদের মধ্যে মারা যান আরও ৩৩ জন।

এদিকে করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের সংখ্যা ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্য অনুযায়ী, শনিবার সকাল পর্যন্ত বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ১০ লাখ ৩৩ হাজার ২২৬ জনের এবং আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩ কোটি ৪৮ লাখ ২৮ হাজার ৮১৮ জন। এর মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২ কোটি ৫৮ লাখ ৯২ হাজার ১৩২ জন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *