পাকিস্তানেই খেলতে হবে, নয়তো সিরিজ বাতিল!

খেলা

নিউজ মিডিয়া ২৪: স্পোর্টস ডেস্ক : বর্তমানে তিন টেস্ট ও তিন টি-টোয়েন্টি খেলতে ইংল্যান্ডে রয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট দল। করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আসার আগে একপ্রকার ঝুঁকি নিয়েই এ সফরটি করেছে পাকিস্তান। প্রায় এক মাস আগে ইংল্যান্ড গিয়েছে তারা। করোনাবিধি সব মান্য করেই শুরু করেছে মাঠের খেলা।

এই টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি সিরিজের পর দুই দলের পরবর্তী দ্বিপাক্ষিক লড়াইয়ে সূচি ঠিক হয়ে আছে ২০২২ সালে, পাকিস্তানের মাটিতে। যেখানে তিন টেস্ট ও পাঁচ ওয়ানডে খেলার কথা রয়েছে ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের। কিন্তু সম্প্রতি পাকিস্তানে এক ক্রিকেট ম্যাচে গোলাগুলির কারণে ফের প্রশ্ন উঠেছে নিরাপত্তা পরিস্থিতি নিয়ে।

এমতাবস্থায় নিরাপত্তার বিষয়ে বরাবরই খুঁতখুঁতে মনোভাব প্রকাশ করা ইংলিশ ক্রিকেট দল আদৌ পাকিস্তান সফর করবে কি না, সে বিষয়ে অনিশ্চয়তা শুরু হয়ে গেছে এখন থেকেই। তবে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারম্যান এহসান মানি সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, খেলা মাঠে গড়ালে সেটা পাকিস্তানেই হবে। অন্যথায় সিরিজই বাতিল করে দেবেন।

বিবিসিকে তিনি বলেছেন, ‘আমি মনে করি না ইংল্যান্ডের না আসার কোনো কারণ থাকবে। আমার কথা পরিষ্কার, আমরা তৃতীয় কোনো দেশে খেলব না। আমরা হয়তো পাকিস্তানেই খেলব, নাহয় খেলাই হবে না।’

২০০৯ সালে লাহোরে শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট দলের ওপর সন্ত্রাসী হামলার পর থেকে দীর্ঘ ১০ বছর টেস্ট ক্রিকেট আয়োজন থেকে দূরে ছিল পাকিস্তান। দীর্ঘ বিরতির পর গতবছরের সেপ্টেম্বর শ্রীলঙ্কা, চলতি বছরে বাংলাদেশ দল গিয়ে সেখানে টেস্ট খেলে এসেছে। এছাড়া আইসিসি বিশ্ব একাদশও পাকিস্তানে গিয়ে খেলেছে টি-টোয়েন্টি সিরিজ।

পিসিবি বসের মতে, নিরাপত্তা পরিস্থিতি নিয়ে সংশয় থাকলে এতগুলো সিরিজ আয়োজন সম্ভব হতো না। এহসান মানির ভাষ্য, ‘পাকিস্তান এখন নিরাপদ। যেসব দল এরই মধ্যে সফরে এসেছে, সবার জন্য নিশ্চিদ্র নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেছি। এমনকি এমসিসি যখন এলো, তারা গলফ খেলতে গিয়েছে, বাইরে ঘুরতে গিয়েছে, রেস্টুরেন্টেও যেতে পেরেছে। ইংল্যান্ড আসার এখনও দুই বছর বাকি রয়েছে। আমি আশা করছি, নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরও উন্নত হবে এবং চলাফেরার স্বাধীনতাও বাড়বে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *