ফরিদগঞ্জ থানার ১০নং রামপুর এলাকায় রমরমা মাদকের বানিজ্য ! মাদক বিক্রিতে বাধা দেওয়ায় পরিবারের উপর হামলা আহত ৫

অপরাধ জেলার-খবর

নিউজ মিডিয়া ২৪ : ফরিদগঞ্জ :চাঁদপুর জেলা ফরিদগঞ্জ থানার ১০নং রামপুর এলাকায় মাদকের চৌবলে ধংসের পথে পা দিয়েছে এলাকার যুব-সমাজ ।এলাকার বেশির ভাগ যুবকরাই মাদকের নেশায় আসক্ত হওয়ায় অপরাধের মাত্রা বেড়ে যায় দিনের পর দিন । হাত বাড়ালে মিলছে মাদকের সন্ধান । গত কয়েক দিন আগে মাদক বিক্রির প্রতিবাদে একেই এলাকার কামাল গাজীর পরিবারের উপর হামলা চালায় মাদক বিক্রি করা আলাউদ্দিন,তারেক মোবারক ও মহসিনসহ একাদিক মাদক বিক্র্রি ও সেবনকারী সন্ত্রাসী বাহিনী ।

কামাল গাজীর বাবা হজু গাজী বলেন , সানু বেগম নামে একজন মাদক বিক্র্রিতা দির্ঘ্য দিন যাবত মাদক বিক্রি করে আসছে অহরহ । এতে করে বাড়িতে সব সময় এলাকার যুব সমাজ থেকে শুরু করে অঙ্ঘাত লোকজনের গতিবিধি বেড়ে যাওয়ায় আমি তাদেরকে এ বাড়িতে না আশার নিষেধ জন্য করি । তাতে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে আমার ও আমার পরিবারের উপর অতর্কিত হামলা চালায় । এতে করে আমার পরিবার পতিবন্ধি সন্তান সহ ৫জন গুরত্বর আহত হয় । পরে আহতদের চাদপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয় । আমার স্ত্রীর শরীরে হাতুড়ি দিয়ে আঘাত করায় তার হাত ও পায়ের কয়েকটি হাড় ভেঙ্গে যায় । পরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্যঢাকা পিজি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় । বর্তমানে আমার স্ত্রীসহ কয়েক জন চিকিৎসাধীন রয়েছেন । তবে ঔ এলাকায় মাদকের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায হামলার শিকার হয়েছেন আরো অনেকেই । নাম প্রকাশে অনইচ্ছুক এক ব্যাক্তি বলেন, মাদকের ব্যবসায় লাভমান হওয়া ও অতি তাড়াতাড়ি ধনী হওয়ায় এ ব্যবসায় লিপ্ত হয়ে পড়েছে সমাজের উচু পর্যায়ের লোকজনও।

সরেজমিনে জানা যায়, মাদকের ব্যবসায় জড়িত রয়েছেন সাবেক জনপ্রতিনিধির পরিবারের লোকজন। এদের মধ্যে প্রধান হোতা মাদকের ডিলার একাদিক মামলার আসামী অস্র বহনকারী এবং অস্র বিক্রেতা এমরান হোসেন ভূইয়া পিতা : মোকতার আহম্মেদ ভূইয়া ও জহিরুল ইসলাম ভূইয়া (স্বপন ভূইয়া),সবুজ ব্যাপারী পিতা মৃত: রশিদ ব্যাপারী । বর্তমানে আওমীলিগ দলের নাম ভাঙ্গিয়ে নিজেকে ক্ষমতাবান মনে করে এলাকার কিছু সরল সোজা যুব সমাজকে অবৈধ অর্থের লোভ দেখিয়ে দেদাড়ছে চালিয়ে যাচ্ছে মাদক ব্যবসা ।ক্রমানয়ে পুরো এলাকায় মাদকের ব্যবসা ছড়িয়ে পড়ায় মানুষের মাজে দেখা দিয়েছে ক্ষোভ ও আতংক । তবে বারবার মাদকের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে ব্যর্থ হওয়ায় তাদের হুমকি ও আতংকে জীবনের উপর ঝুকি নিতে রাজী নয় কেউ ।

ফরিদগঞ্জ থানা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তৎপর ও মাদকের অভিযানের ব্যাপারে জানতে চাইলে এক ভুক্তভোগী বলেন,কিছুদিন পুলিশের জোড়ালো ভুমিকা থাকলেও এখন কিছুটা কম থাকার কারনে মাদকের ব্যবসা হয়ে উঠছে জমজমাট ।তবে এদেরকে আটক বা গ্রেপ্তার করলেও পতিকার পাওযা যায় না । কারন, থানা থেকে টাকার বিনিমযে চলে আসে অনেকেই । আবার মাদক মামলায় চালান দেওয়া হলেও কিছু দিন থাকার পর জামিনে এসে পুনরায জড়িযে পড়েছে এই ব্যাবসায ।

এলাকা বাসীর দাবি এসব মাদক ব্যবসীদের আটক করে বিচারের আওতায এনে এলাকাটিকে মাদক ও সন্ত্রাসীর হাত থেকে মুক্ত করে ১০নং রামপুরকে মাদক মুক্ত রামপুর গড়া হোক । এতে করে সরকারের সকল দপ্তরের সু-দৃষ্টি কামনা করেন এলাকাবাসি ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *