বলিউডের প্রয়াত অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত মৃত্যু রহস্য জট খুলছে

আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র ভারত সারা-বিশ্ব

ঢাকা (৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০) : মাদকের সংশ্লিষ্টতার কারণে বড় মোড় নিয়েছে বলিউডের প্রয়াত অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত মৃত্যু রহস্য। শুক্রবার (৪ সেপ্টেম্বর) রাতে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ব্যুরো (এনসিবি) গ্রেপ্তার করে তার প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীর ভাই শৌভিক চক্রবর্তীকে। একই অভিযোগে গ্রেপ্তার হয়েছেন সুশান্তের সাবেক ম্যানেজার স্যামুয়েল মিরান্ডাও। এ নিয়ে মোট গ্রেপ্তার সংখ্যা সাত।
এর আগে রিয়ার বাড়িতে হানা দিয়েছিল নারকোটিক্স কন্ট্রোল বুরোর (এনসিবি) একটি দল। স্যামুয়েলের বাড়িতেও তল্লাশি চালায় তারা। পরে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য শৌভিক ও স্যামুয়েলকে নিয়ে যাওয়া হয় এনসিবি-র দফতরে। প্রথমে আটক করা হয়েছিল তাদের, পরে গ্রেপ্তার করা হয় দু’জনকে।
রিয়ার হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটের মাধ্যমেই সুশান্তের মৃত্যু তদন্তের মধ্যে মাদক সংশ্লিষ্টতার বিষয়টি সামনে আসে। এ সংক্রান্ত তথ্য ইডির পক্ষ থেকে পাঠানো হয় সিবিআই ও এনসিবির কাছে। এরপরে বলিউডে ও মুম্বাইয়ের অভিজাত মহলে তল্লাশি শুরু করেন এনসিবির গোয়েন্দারা।
বলিউডের প্রয়াত অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত মৃত্যু রহস্য। শুক্রবার (৪ সেপ্টেম্বর) রাতে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ব্যুরো (এনসিবি) গ্রেপ্তার করে তার প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীর ভাই শৌভিক চক্রবর্তীকে।
মাদক চক্র খুঁজতে গিয়ে ইতোমধ্যে জায়েদ ভিলাত্রা ও আব্দুল বাসিত পারিহার নামে দুই মাদক কারবারিকে গ্রেফতার করেছে এনসিবি। কাইজান ইব্রাহিম নামে আর এক ব্যক্তিকেও জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন গোয়েন্দারা।
মুম্বাইয়ের আদালতে এনসিবি দাবি করে, সুশান্তের মৃত্যু নিয়ে তদন্তের মধ্যে যে মাদক যোগের প্রসঙ্গ উঠে এসেছে, সে ব্যাপারে আব্দুল বাসিতের বিশেষ ভূমিকা রয়েছে।
কোর্টে এনসিবি বলেছে, আব্দুল বাসিত পারিহার তাদের জানিয়েছে, শৌভিকের নির্দেশেই জায়েদ ও ইব্রাহিমের কাছ থেকে মাদক কিনতেন তিনি। তার বক্তব্য থেকে স্পষ্ট, সমাজের উঁচুতলায় মাদক সরবরাহের যে সিন্ডিকেট, তিনি তারই অংশ। আগামী ৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত আব্দুল বাসিত পারিহারকে এনসিবির হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেয় আদালত।
একই মামলায় বৃহস্পতিবার গ্রেপ্তার হয় তাদের সহযোগী মাদক ব্যবসায়ী জায়েদ বিলাত্রা। এছাড়াও গত সপ্তাহে গ্রেফতার হয় আব্বাস লাখানি ও করণ অরোরা নামে আরো দু’জন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *