বিজিবি গত ৮ মাসে অভিযান চালিয়ে ৩৭২,৯,৫৯,০০০ হাজার টাকা মূল্যের চোরাচালান ও মাদকদ্রব্য জব্দ করেছে

অপরাধ জাতীয় প্রচ্ছদ বাংলাদেশ

ঢাকা (০৭অক্টোবর ২০২০):  বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ফেব্রুয়ারি-২০২০ মাস হতে সেপ্টেম্বর ২০২০ মাস পর্যন্ত দেশের সীমান্ত এলাকাসহ অন্যান্য স্থানে ৫ লক্ষাধিক অভিযান পরিচালনা করে সর্বমোট ৩৭২ কোটি ০৯ লক্ষ ৫৯ হাজার টাকা মূল্যের বিভিন্ন প্রকারের চোরাচালান ও মাদকদ্রব্য জব্দ করতে সক্ষম হয়েছে।

জব্দকৃত অন্যান্য চোরাচালান দ্রব্যের মধ্যে রয়েছে ৩৭.১৪১ কেজি স্বর্ণ, ২০২.৩৭১ কেজি রূপা, ৫,৮১১টি ইমিটেশনের গহনা, ৬,০৪,০২৯টি কসমেটিক্স সামগ্রী, ১২,৬০০টি শাড়ি, ৮,০৭৭টি থ্রিপিস ও শার্টপিস, ৩,৪৭৫টি তৈরী পোশাক, ৬২২ মিটার থান কাপড়, ৮,৮৪,৯৫১.৩০ ঘনফুট কাঠ, ৩৮,১২,০৮২ কেজি চা পাতা, ১,১৭,১৭৫ কেজি কয়লা, ৩২টি ট্রাক, ১৮টি প্রাইভেটকার, ২৭টি পিকআপ, ১৫১টি সিএনজি ও ইঞ্জিন চালিত অটোরিকশা এবং ৫৬১টি মোটর সাইকেল।

উদ্ধারকৃত অস্ত্রের মধ্যে রয়েছে ২২টি পিস্তল, ১টি রিভলবার, ৪৫টি সকল প্রকার গান, ২৭টি ম্যাগাজিন, ১,০৯৭ রাউন্ড গুলি, ৮০০ গ্রাম গান পাউডার এবং ৪টি আইইডি। এছাড়াও সীমান্তে বিজিবি’র অভিযানে ইয়াবাসহ বিভিন্ন প্রকার মাদক পাচার ও অন্যান্য চোরাচালানে জড়িত থাকার অভিযোগে ২০৬৩ জন চোরাকারবারীকে এবং অবৈধভাবে সীমান্ত অতিক্রমের দায়ে ৩৪৪ জন বাংলাদেশী নাগরিক ও ৯৬ জন ভারতীয় নাগরিককে আটকের পর তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে, যার ফলশ্রুতিতে সীমান্ত অপরাধ সৃষ্টি হওয়ার সুযোগ দমন করা সম্ভব হয়েছে।

চলমান করোনা ভাইরাস মহামারীতে জর্জরিত সারাদেশে যখন সকল ধরনের কার্যক্রম স্থবির হয়ে পড়ার উপক্রম তখন বিজিবি সদস্যররা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণপূর্বক নিজ নিজ দায়িত্ব ও কর্তব্যে অটুট থেকে দেশের ৪,৪২৭ কিলোমিটার সীমান্ত রক্ষার পবিত্র দায়িত্ব অব্যাহত রেখেছে।

জব্দকৃত মাদকের মধ্যে রয়েছে ৬৭,৫৮,০৬১ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ৩,০১,৮৩০ বোতল ফেনসিডিল, ৫০,৭৯০ বোতল বিদেশী মদ, ৫,৯৫৮ ক্যান বিয়ার, ৮,৮৯৭.৯২৬ কেজি গাঁজা, ১৪.০৩২ কেজি হেরোইন, ৩০,৫৯৭টি উত্তেজক ইনজেকশন, ৪৬,২১৯টি এ্যানেগ্রা ও সেনেগ্রা ট্যাবলেট এবং ১৭,৬৩,৮৪৫টি অন্যান্য ট্যাবলেট।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *