মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছেন, ‘আগামী এক বছরের মধ্যে ঢাকার সব ঝুলন্ত তার নামিয়ে ফেলা হবে।’

জাতীয় প্রচ্ছদ বাংলাদেশ রাজধানী

ঢাকা (১ অক্টোবর, ২০২০): উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছেন, ‘তারের (ক্যাবল) জঞ্জালের ফলে নষ্ট হচ্ছে শহরের সৌন্দর্য। তাই আগামী এক বছরের মধ্যে ঢাকার সব ঝুলন্ত তার নামিয়ে ফেলা হবে।’

তিনি বলেছেন, ‘যদি এনটিটিএন (ন্যাশনওয়াইড টেলিকমিউনিকেশন ট্র্যান্সমিশন নেটওয়ার্ক) তারা তাদের কাজ না করে, আমরা সিটি করপোরেশন থেকে আমাদের ড্রেনের নিচ থেকে পাইপ দিয়ে দেব। তারা সেই পাইপ দিয়ে তার নেবেন। এর জন্য তারা আমাদেরকে নির্দিষ্ট ফি দেবেন। সংস্থাগুলো আমাদের এই প্রস্তাবে রাজি হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘এনটিটিএন লাইসেন্স নিয়েও ১০ বছরে তারা কোনো কাজ করেনি। বিটিআরসি তারা নিয়ন্ত্রক সংস্থা, কিন্তু তারা এগুলো সেভাবে তদারকি করেনি।’

‘ঝুলন্ত তার অপসারণে সাধারণ গ্রাহকদের যেন ভোগান্তি না হয় সেদিকে খেয়াল রাখা হচ্ছে’ দাবি করে ডিএনসিসি মেয়র বলেন, ‘আমরা এমনভাবে তার কাটতে বলেছি যেন গ্রাহকদের অসুবিধা না হয়।’

তিনি বলেন, ‘অনেক অভিভাবক আমাকে বলেছেন তাদের ছেলেমেয়েরা বাসায় ইন্টারনেটে ক্লাস করেন। এর জন্য সংস্থাগুলো আমার থেকে ৭ দিন সময় নিয়েছেন যেন মোড় বা ক্রসিংয়ের জায়গার তারগুলো না কাটি। এখন শুধু প্রধান সড়কের তার কাটা হচ্ছে।’

বৃহস্পতিবার (১ অক্টোবর) পূর্ব নির্ধারিত কার্যক্রম অনুযায়ী গুলশান ২ এ ঝুলন্ত তার অপসারণ অভিযানে অংশ নিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘রাজধানী ঢাকায় ঝুলন্ত তারের জন্য বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি), কেবল অপারেটর অ্যাসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশ (কোয়াব), ন্যাশনওয়াইড টেরিস্ট্রিয়াল ট্রান্সমিশন নেটওয়ার্ক (এনটিটিএন), ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার অ্যাসোসিয়েশন (আইএসপিএবি) সহ সংশ্লিষ্ট সংস্থাগুলো সবাই দায়ী। আমি যতবার এই ঝুলন্ত তার নিয়ে মিটিং করেছি, তখন এক সংস্থা আরেক সংস্থাকে দায়ী করে। কিন্তু দায়ী এরা আসলে সবাই।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *