শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী ফেরি পারাপারের অপেক্ষায় ৩০০ গাড়ি, যাত্রীদরে ভোগান্তি

জেলার-খবর

মুন্সীগঞ্জ : দক্ষিণবঙ্গের ২১টি জেলার প্রবেশদ্বার মুন্সীগঞ্জের শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে ৩০০ গাড়ি পারের অপেক্ষায় আছে। নাব্যতা সংকটে পুরোপুরিভাবে নিরসন না হলেও ঘাট এলাকায় গাড়ির স্বাভাবিক চাপ রয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

শনিবার সকাল থেকেই নৌরুটে ১১টি ফেরি চলাচল করছে। কে-টাইপ, মাঝারি ফেরির সাথে ২টি ডাম্প ফেরি চলাচল করছে নৌরুটে। সকাল ৮টার দিকে ঘাট এলাকায় পারের অপেক্ষায় ৩০০ গাড়ি অবস্থান করতে দেখা গেছে।

বিআইডব্লিউটিসি’র শিমুলিয়া ঘাটের উপ-মহাব্যবস্থাপক শাহ মো. খালেদ নেওয়াজ জানান, নৌরুটে বর্তমানে ১১টি ফেরি চলাচল করছে। নাব্যতা সংকটের কারণে চ্যানেলের মুখে ডাম্প ফেরিগুলো চালাতে সমস্যা হচ্ছে।

তিনি জানান, বিআইডব্লিউটিএ’র ড্রেজিং বিভাগ বলছে ডাম্প ও রো রো ফেরি চালানোর জন্য উপযোগী বর্তমানে। তবে একই শাখার আরেকটি বিভাগ বলছে, চ্যানেলের মুখে নাব্য সংকটের কারণে বড় ফেরি চালানো এখনো উপযোগী নয়। এই নিয়ে তাদের মধ্যে সমস্যা দেখা দিয়েছে।

বিআইডব্লিউটিএ’র মেরিন কর্মকর্তা মোহাম্মদ আলী জানান, ডাম্প ফেরি চ্যানেলে চালানোর উপযোগী কিনা সেই বিষয়ে ট্রায়াল দেওয়া হবে।

বিআইডব্লিউটিএ’র শিমুলিয়া ঘাট পরিদর্শক মো. সোলেমান জানান, সকাল থেকেই যাত্রীদের চাপ লক্ষ্য করা গেছে লঞ্চ ঘাট এলাকায়। ৮৭টি লঞ্চের মাধ্যমে যাত্রীরা পারাপার হচ্ছেন। তবে চাপ থাকলেও যাত্রীরা ভোগান্তি ছাড়াই যাতায়াত করছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *