সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী বলেছেন, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে বাংলাদেশ নামক রাষ্ট্র বিশ্বের বুকে আত্মপ্রকাশ করে

জাতীয় বাংলাদেশ রাজধানী

ঢাকা (২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০): সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ এমপি বলেছেন, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে মহান মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে বাংলাদেশ নামক রাষ্ট্র বিশ্বের বুকে আত্মপ্রকাশ করে। আর তাঁরই সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক মুক্তি সাধিত হচ্ছে।
স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তি এখনো তাঁকে হত্যার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। ইতোমধ্যে ১৯ বার তাঁকে হত্যার অপচেষ্টা করা হয়েছে। সে জন্য আমাদেরকে আরো সতর্ক ও সচেতন হতে হবে। আমরা সংযত না হলে স্বাধীনতাবিরোধী শক্তি আবারও মাথাচাড়া দিয়ে ওঠতে পারে।’
বাংলা একাডেমির সভাপতি অধ্যাপক শামসুজ্জামান খানের সভাপতিত্বে সেমিনারে ‘শেখ হাসিনা রচিত ও সম্পাদিত গ্রন্থপাঠ কেনো অপরিহার্য’ শীর্ষক মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ। স্বাগত বক্তৃতা করেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী।
এর আগে প্রতিমন্ত্রী বাংলা একাডেমি আয়োজিত তিন দিনব্যাপী শেখ হাসিনা রচিত ও সম্পাদিত গ্রন্থ প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন।
তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ, বলিষ্ঠ ও দূরদর্শী নেতৃত্বে উন্নয়নশীল দেশ হিসাবে স্বীকৃতি পেয়েছে আজ বাংলাদেশ। অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি বেড়েছে। খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা, বেকারত্ব হ্রাস, কৃষিতে সফলতা, নারীর ক্ষমতায়ন, স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতকরণসহ অবকাঠামো উন্নয়নে বিপ্লব ঘটেছে। স্থল সীমানা চুক্তির বাস্তবায়ন, পদ্মা সেতু নির্মাণ, মেট্রোরেল নির্মাণ, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ, গরিব শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান, বিনামূল্যে নতুন বই বিতরণ, প্রতিটি ইউনিয়নে ডিজিটাল তথ্যসেবা কেন্দ্র স্থাপন, মহাকাশে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ উৎক্ষেপণ, সেনাবাহিনীর শক্তি বৃদ্ধি ও জাতিসংঘ মিশনে বাংলাদেশের এক নম্বর স্থান অর্জন। পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তিচুক্তি বাস্তবায়ন, আন্তর্জাতিক আদালতে ভারত ও মিয়ানমারের সঙ্গে সমুদ্রসীমা নির্ধারণ করে আরেক বাংলাদেশের জন্ম দিয়েছেন তিনি। রূপকল্প ২০২১ ও ২০৪১ এবং ডেল্টা প্ল্যান ২১০০ ঘোষণা এবং তা বাস্তবায়নে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দূরদর্শী ও গতিশীল নেতৃত্বের পরিচয় দিয়েছেন।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *