হেফাজতে ইসলামের হরতালে ৭টি মামলা আসামি সাড়ে ৮ হাজার, গ্রেপ্তার ১৪ জন

অপরাধ জাতীয় জেলার-খবর

ঢাকা (৩১ মার্চ, ২০২১): ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় রোববার (২৮ মার্চ) হেফাজতে ইসলামের হরতাল চলাকালে দিনভর এবং গত শুক্রবার (২৬ মার্চ) হেফাজতে ইসলামের নেতা-কর্মীদের বিভিন্ন স্থাপনায় ভাংচুরের ঘটনায় মঙ্গলবার (৩০ মার্চ) পর্যন্ত থানায় ৭টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বিভাগীয় কমিশনার এ.বি.এম. আজাদ এনডিসি সাংবাদিকদের জানান, ক্ষয়-ক্ষতি নিরুপণ করা হচ্ছে। প্রত্যেক প্রতিষ্ঠানকে ক্ষয়-ক্ষতি নিরুপণ করার জন্য বলা হয়েছে।

তিনি বলেন,‘ ক্ষয়-ক্ষতির পরিমাণ নিরুপণের পর সরকারি সহযোগিতার ব্যবস্থা করা হবে। ঘটনায় জড়িতদের আইনের আওতায় এনে বিচারের ব্যবস্থাও করা হবে।’

চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি আনোয়ার হোসেন আগুনে পুড়িয়ে দেওয়া বিভিন্ন স্থাপনা পরিদর্শন করে বলেন, ‘ঘটনা তদন্ত করতে অতিরিক্ত ডিআইজিকে প্রধান করে তিন সদস্য বিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।’

জেলা ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি কবি জয়দুল হোসেন বলেন, ‘আমাদেরকে বিচারহীনতার সংস্কৃতি থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। প্রতিটি ঘটনা তদন্ত করে দোষীদের বিচারের আওতায় আনতে হবে। অন্যথায় এ ধরনের সাম্প্রদায়িক হামলা বন্ধ হবে না।’

আশুগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাবেদ মাহমুদ বলেন, ‘হামলা-ভাংচুরের ঘটনায় মঙ্গলবার সকালে আশুগঞ্জ থানায় দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।’

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ ও প্রশাসন) মোহাম্মদ রইছ উদ্দিন বলেন, ‘তিন দিনের সংঘর্ষের ঘটনায় এখন পর্যন্ত ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। সংঘর্ষের সময় পুলিশের ৮০ সদস্য আহত হয়েছেন। আমিও আহত হয়েছি।’

এর মধ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সদর মডেল থানায় ৫টি ও আশুগঞ্জ থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়। এসব মামলায় আসামি করা হয়েছে সাড়ে ৮ হাজার জনকে। ইতোমধ‌্যে গ্রেপ্তার করা হয়েছে ১৪ জনকে।

দায়েরকৃত ৭টি মামলার মধ্যে পুলিশ সুপারের কার্যালয় ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় দুটি, আনসার-ভিডিপির কার্যালয়ে হামলা ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় একটি, ইউনির্ভাসিটি অব ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হামলার ঘটনায় একটি, শহরের মেড্ডা পীরবাড়ি এলাকায় হামলা-ভাংচুরের ঘটনায় একটি এবং আশুগঞ্জ টোলপ্লাজায় হামলার ঘটনায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করা হয়।

সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুর রহিম এসব তথ‌্য নিশ্চিত করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *